সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ – Sehri and Iftar Time

আজকের সেহরি ও ইফতারের সময় সকল জেলার জন্য

ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ অনুমোদনকৃত সময় অনুযায়ী আপনি যদি আজকের ঢাকা জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি সম্পর্কে জেনে নিতে চান এবং একই সাথে ঢাকা জেলার নামাজের সময়সূচি জেনে নিতে চান তাহলে সেটা সেটি এখান থেকে জেনে নিন।

আপনার লোকেশন : ঢাকা জেলা, বাংলাদেশ
ভুল লোকেশন দেখাচ্ছে?


ঢাকা জেলার আজকের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি

ঢাকা জেলার আজকের সেহরীর শেষ সময়: ০৩:৪৮ ভোর এবং ঢাকা জেলার আজকের ইফতারের সময় হল: ০৬:৫৩ সন্ধ্যা

সেহরির শেষ সময়ইফতারের সময়
Sehri Icon ০৩:৪৮ ভোরIftar Icon ০৬:৫৩ সন্ধ্যা

ঢাকা জেলার আজকের নামাজের সময়সূচি

ফজরযোহরআসরমাগরিবএশা
Fajr
০৩:৫৪ ভোর
Dhuhr
১২:০৮ দুপুর
Asr
০৪:৪৩ বিকেল
Maghrib
০৬:৫৩ সন্ধ্যা
Isha
০৮:১৮ রাত

ঢাকা জেলার আজকের নামাজের সময়সূচী: ঢাকা জেলার ফজরের নামাজের সময় ০৩:৫৪ ভোর; ঢাকা জেলার যোহর নামাজের সময় ১২:০৮ দুপুর; ঢাকা জেলার আসরের নামাজের সময় হবে ০৪:৪৩ বিকেল; ঢাকা জেলার মাগরিবের নামাজের সময় ০৬:৫৩ সন্ধ্যা; ঢাকা জেলার এশার নামাজের সময় ০৮:১৮ রাত।

এছাড়াও আপনি যদি বিভিন্ন জেলার জন্য, আজকের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি হিসেবে এই সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করে নিতে চান এবং দেখে নিতে চান; আজকের বিভিন্ন জেলার ওয়েবসাইট এবং ইফতারের সময়, তাহলে সে সংক্রান্ত তথ্য আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

অর্থাৎ যেহেতু নির্দিষ্ট সময়ের জন্য প্রায় প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক মুসলমান নর-নারীদের জন্য, রমজান মাসে রোজা রাখা ফরজ করা হয়েছে সেজন্য আমাদেরকে বাধ্যতামূলকভাবে নির্দিষ্ট সময়ে রোজা রাখতে হয়।

সেজন্যই আমাদেরকে জেনে নিতে হয়; নির্দিষ্ট সময়ের জন্য সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচি।

সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচি কখন প্রয়োজন হয়?

আপনি যদি মুসলিম হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে নিশ্চয়ই রোজা রাখতে হবে, সেটা অবশ্যই বাধ্যতামূলক। এবং এই সম্পর্কে আল্লাহ কুরআন মাজীদে বলেন:

হে মুমিনগণ! তোমাদের প্রতি রোজা ফরজ করা হয়েছে, যেমন তোমাদের পূর্ববর্তী লোকদের প্রতি ফরজ করা হয়েছিলো, যাতে তোমাদের মধ্যে তাকওয়া সৃষ্টি হয়। (সুরা বাকারা: আয়াত- ১৮৩)

অর্থাৎ রমজান মাসের, প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য রোজা রাখা ফরজ। এবং আপনি যদি রমজান মাসে রোজা রাখতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই রোজার মাসের যে ক্যালেন্ডার সেটি সংগ্রহ করে নিতে হবে।

কারণ কুরআনে অন্যত্র বর্ণনা করা আছে: আর যতক্ষণ না ভোরের সাদা রেখা কালো রেখা থেকে পৃথক হয়ে যায়, ততক্ষণ পর্যন্ত তোমরা খাও ও পান করো। তারপর রাতের আগমন পর্যন্ত রোজা পূর্ণ করো। (সুরা বাকারা: আয়াত- ১৮৭)

অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময় ধরে আপনাকে তাই এবং ইফতার খেতে হবে এবং তারপরে সেহরি এবং ইফতার এ রমজান পরিপূর্ণ করতে হবে। সেজন্য আপনাকে সংগ্রহ করে নিতে হয় সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচি।

তবে রমজান মাস ছাড়া আপনি যদি অন্য যে কোন মাসে রোজা রাখতে চান, তাহলে শুধুমাত্র দুইটি ঈদের দিন বাদে বাকি দিনগুলোতে আপনি নফল রোজা রাখতে পারেন।

যেহেতু নফল রোজা রাখার ক্ষেত্রে, সেরকম কোন ইফতার এবং সেহরির সময়সূচি রিলেটেড তথ্য পাওয়া যায় না, আমাদের সে ক্ষেত্রে আপনি চাইলে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সেই সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

এবং এক কথায় বলতে গেলে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করতে পারেন।

Scroll to Top